গুগল অ্যাডসেন্স পাওয়ার জন্য সহজ একটা উপায় জেনে নিন

অ্যাডসেন্স পাওয়ার

গুগল অ্যাডসেন্স পাওয়ার জন্য সহজ একটা উপায়

বর্তমানে গুগল অ্যাডসেন্স এর দাম অনেক বেশি বলা চলে। আপনি যদি নতুন হোন বা অ্যাডসেন্স সাইট খুজতে থাকেন তাহলে নিচের পদ্ধতি অনুসরণ করতে পারেন। আমি এখানে গুগল অ্যাডসেন্স পাওয়ার সহজ একটা পদ্ধতি বলার চেষ্টা করবো ইনশাআল্লাহ।

অ্যাডসেন্স পাওয়ার
এখানে আজকে আমি অ্যাডসেন্স পাওয়ার জন্য একটা সহজ পদ্ধতি বা উপায় বলার চেষ্টা করবো। যেটা আপনি অনুসরণ করতে পারেন।

ব্লগার ও ওয়ার্ডপ্রেস দুইটা সাইটের জন্য আমি আলাদা করে নিয়ম ছোট করেই বলার চেষ্টা করবো। আসলে অনেকেই গ্রুপে প্রশ্ন করেছেন বিষয়টা নিয়ে। এখানে আমি যতটুকু জানি ততটুকুই শেয়ার করবো। রিসেন্টলী আমিও এভাবেই পেয়েছি। তাই আপডেট তথ্যটাই দেবো ইনশাআল্লাহ।

তারপরেও অনলাইনে নিয়মিত আপডেট হতে থাকে। আপনি আপনার মত করে নিয়মগুলো নিয়ে কাজ করতে পারেন।

ব্লগার সাইটে গুগল অ্যাডসেন্স পাওয়ার সহজ নিয়ম বা উপায়

আমরা অনেকেই মনে করে থাকি যে, ব্লগারে মনে হয় অ্যাডসেন্স পেতে সমস্যা হয় বেশি। তবে তাদের জ্ঞাতার্থে বলবো ওয়ার্ডপ্রেসের চাইতে আপনি যদি ভালো কাজ জানেন তাহলে ব্লগারে অনেক সহজেই গুগল অ্যাডসেন্স পেতে পারেন। আমি এখানে কয়েকটি পয়েন্ট করে নিয়মগুলো বলবো।

১.  প্রথমে আপনি একটা ভালো কম্পানি থেকে টপ লেবেন ডোমেইন কিনবেন। যেমন, আপনি নেমচিপ থেকে একটা ডট কম ডোমেইন ৯০০ টাকা বা কমবেশি টাকা দিয়ে কিনবেন। টাকা কম থাকলে ১৫০ টাকা দিয়ে ডট XYZ ও কিনতে পারেন। কেনার জন্য সহযোগীতা আপনি গ্রুপে এডমিন প্যানেল থেকে বা গ্রুপে পোস্ট করেই নিতে পারবেন। পোস্ট করে নিলে অবশ্যই এডমিন ডিল করে কিনবেন প্রতারণা থেকে বাচতে।

২.  প্রথমে আপনি ডোমেইন কিনে সেই নামে একটা মেইল করে নিবেন। তারপর ব্লগার এ প্রথমে থাকা সাইটটাকে সেট করে নিবেন। যদি না থাকে নতুন করে করে নিবেন। তারপর সেট করে নিবেন। সেট করার জন্য

আরো পড়ুন >> ব্লগারে কাস্টোম ডোমেইন কিভাবে সেট করবেন ?

উপরের লিংকটা দেখে নিতে পারেন। তারপর ক্যানভা থেকে ফ্রিতে পেজগুলোর ইমেজ তৈরি করে ৪টি পেজ করে নিবেন। যেমন, About Us, Contact Us, Privacy Policy & Terms & Conditions আরও করতে পারেন। তবে এই চারটি অবশ্যই করবেন। পেজগুলো লিখেও করতে পারেন আবার জেনারেট করেও করতে পারেন।

৪.  ফ্রি থিম ব্যবহার করবেন অথবা প্রিমিয়াম থিম। তারপর কাস্টোমাইজেশান করবেন। যেমন, থিমের লেআউট থেকে অ্যাডস কোড উঠিয়ে পেজগুলো লিংক করে নিবেন। ফেবিকন পিকচার একটা বানিয়ে সেট করে নিবেন। লগো করে সেট করে নিবেন। এভাবে কাস্টোমাইজেশান করে নিবেন। না পারলে ফেসবুক গ্রুপে পোস্ট করবেন বা ইউটিউব ভিডিও দেখে দেখে করবেন।

আরো পড়ুন >> Google adsense কি ? গুগল এডসেন্সের থেকে কিভাবে আয় করবেন

৫.  তারপর ৫-৬টা ক্যাটাগোরি করে প্রত্যেকটি ক্যাটাগোরিতে কমপক্ষে ৪টা করে পোস্ট করবেন। পোস্ট করার সময় অবশ্যই ব্লগারে কাস্টোম URL টা ঠিক করে নিবেন। বাংলায় URL দেওয়া যাবে না বিধায় ইংরেজীতে দিতে হবে। আপনি চাইলে বাংলিশ ভাষাতেও দিতে পারবেন। তবে কাস্টোম করে দিবেন।

৬. সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো উপরে আমি কিন্তু এখন সার্চ কনসোল এ যুক্ত হওয়ার কথা বলি নাই। সুতরাং অপেক্ষা করতে হবে পোস্ট করে কিছুদিন। পোস্ট যদি ১০-১৫টার মত হয় তারপর আমি যদি সার্চ কনসোল ও বিং এ যুক্ত করতে পারেন তাহলে করে নিবেন। তবে অবশ্যই কমপক্ষে ১০-১৫ টা পোস্ট নিয়মিত করতে হবে বা সাইটে থাকতে হবে।

৭.  আমার পরামর্শ থাকবে ১০০-৩০০ টাকা খরচ করে আপনি ইনস্ট্যান্ট ইনডেক্স সেট করে নেন। ফেসবুক গ্রুপ এ পোস্ট করে আপনি এই সার্ভিসটা নিতে পারেন। এতে করে আপনার পরিচিতিও বাড়বে আর আপনি ইনডেক্স নিয়ে সমস্যাতে পড়বে না।

আরো পড়ুন >> You already have an Existing AdSense account সমস্যা ও সমাধান

৮.  অবশ্যই মনে রাখবেন ইনডেক্স করতে হবে। আর গুগল অ্যাডসেন্স পাওয়ার জন্য অবশ্যই শুরুতে আপনাকে ইউনিক কনটেন্ট দিতে হবে। কপিরাইট কনটেন্ট দেওয়া যাবে না। আর ইনডেক্স সমস্যার সমাধান হয়ে গেলে আপনি চেষ্টা করবেন কিছু ব্যাকলিংক + কী-ওয়ার্ড রিসার্চ করার।

৯.  গুগল ক্রমে Keyword Surfer নামে এক্সটেনশান দিয়েও করতে পারেন যেটা আমি নিজেই করি। আর ব্যাকলিংক করবেন। তবে ব্লগিং বা টেক নিয়ে হলে আপনি এই সাইটে গেস্ট পোস্ট করে নিতে পারবেন। ব্যাকলিংক অনেক গুরুত্বপূর্ণ মনে রাখবেন।

আরো পড়ুন >> গুগল থেকে আয় করার ৬টি সহজ উপায়

১০.  এভাবে ২০-২৫ দিনে চেষ্টা করবেন ৩০-৩৫ হাজার এর বেশি শব্দ যুক্ত মোট ৩০-৩৫টা পোস্ট করার। এবং সবগুলো পোস্ট ইনডেক্স করার। তারপর আপনি আবেদন করবেন। আবেদন করার পর নিয়মিত একদিন বা দুইদিন পরপর পোস্ট করবেন।

অ্যাডসেন্স পাওয়ার জন্য নিয়মিত পোস্ট করাটাও জরুরী। হ্যা অনেকেই বিভিন্ন পদ্ধতি ব্যবহার করে তবে আমি উপরে একদম সহজ ও সাধারণ নিয়ম বলেছি। যেটা সবাই বুঝতে পারবেন আশা করি।

আরো পড়ুন >> গুগল অ্যাডসেন্স কেনার সময় কি কি বিষয় লক্ষ্য রাখবেন

বি. দ্র. প্রত্যেকটি পয়েন্ট অনুসরণ করবেন। আর এই ধরনের সাইট যদি ডটকম দিয়ে শুরু করেন তাহলে আপনার মোট হয়তো ১ হাজার থেকে ১৫০০ টাকা সেট করতে খরচ হবে যদি নিজে ঝামেলা না চান। আর পোস্ট নিজে লিখলে আপনি বেশি ভালো করতে পারবেন। কোন সমস্যা হলে সেটা জানিয়ে বা ছবিযুক্ত করে ফেসবুক গ্রুপ এ পোস্ট করবেন। যদি সমাধান না পান এডমিনকে ম্যাসেজ করবেন তবে আগে ফেসবুক গ্রুপ এ পোস্ট করবেন।

তথ্যসূত্রঃ- ব্যাক্তিগত অভিজ্ঞতা 

লিখাঃ- ডিজিটাল আইসি সেবা 

One Comment on “গুগল অ্যাডসেন্স পাওয়ার জন্য সহজ একটা উপায় জেনে নিন”

Leave a Reply

Your email address will not be published.