Admin Deal বা এডমিন ডিল করার পরিপূর্ণ নিয়ম সম্পর্কে জানুন

Admin Deal

Admin Deal করার পরিপূর্ণ নিয়ম সম্পর্কে জেনে রাখুন

এডমিন ডিল বা Admin Deal কথাটার সাথে বর্তমানে অনেকেই পরিচিত। বর্তমানে আপনি অনলাইনে সহজেই লেনদেন করার জন্য এডমিন এর মাধ্যমেই সহজ ও নিরাপদ ভাবে নিতে পারবেন।

Admin Deal
বর্তমানে প্রতারণা অনেক বেশি হয় বিধায় এডমিন ডিল করার সময় বায়ার এবং সেলার উভয়কেই সতর্ক থাকতে হবে। সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলোর মধ্যে অন্যতম বিষয় হলো নিজে সচেতন হওয়া। আশা করি আামাদের গ্রুপের মাধ্যমে ডিল করার কারণে আপনি অনলাইনে প্রতারণার হাত থেকে বাঁচতে পারবেন এবং একটি বিশ্বস্ত প্লাটফরম পাবেন।

অনলাইনে ব্লগারস ফোরাম বিডি এই গ্রুপ অনেক বিশ্বস্ততার সাথে নিয়মিতই এডমিন ডিল সহ নানা ধরনের অনলাইন একটিভি করে যাচ্ছে নিয়মিতই। আপনি আপনার পণ্য বা ডিজিটাল পণ্যটি এই গ্রুপের মাধ্যমে সেল বা বাই করতে পারবেন।

 

Admin Deal বা এডমিন ডিল কি ? 

বর্তমানে ফেইসবুক গ্রুপের মাধ্যমে সেই গ্রুপের এডমিন এর মাধ্যমে যেই ডিল করা হয়ে থাকে, তাকেই মূলত Admin Deal বা এডমিন ডিল বলে। এডমিন ডিল করার জন্য সেই গ্রুপের পোস্ট অথবা অন্য কোন গ্রুপের পোস্ট থেকে দুইজন বিশ্বস্ত কোন গ্রুপের এডমিন এর মাধ্যমে সেই ডিল বা লেনদেনটা করে থাকে।

 

Admin Deal বা এডমিন ডিল কারা করে থাকে ? 

বিভিন্ন ফেইসবুক গ্রুপ এখন বর্তমানে লোকাল মার্কেটপ্লেস হিসেবে কাজ করছে। এখানে একদল আছে যারা বিভিন্ন পণ্য বা ডিজিটাল পণ্য সেই গ্রুপে পোস্ট করে সেল করে থাকে। এই ধরনের লোকগুলোকে সেলার বলা হয়ে থাকে।

আবার সেই গ্রুপেরই আরেক ধরনের লোক আছে যারা সেই পোস্টকৃত ডিজিটাল পণ্যগুলো কিনে থাকে। আর এই ধরনের লোকদেরকে বায়ার বলা হয়ে থাকে। সেলার এবং বায়ার যেই প্রসেস এর মাধ্যমে কোন পণ্য বা সেবা নিয়ে থাকে তাকেই মূলত Admin Deal বা এডমিন ডিল বলা হয়।

 

এডমিন ডিলের ক্ষেত্রে সেলার কি দেখবেন

এডমিন ডিল করার সময় সেলার এবং বায়ার উভয়ই গুরুত্বপূর্ণ। অনেক সময় সেলার প্রতারণা করতে পারে আবার অনেক সময় বায়ার প্রতারণা করতে পারে। যদি বায়ার প্রতারণা করে বা সেলার হিসেবে আপনি যদি সৎ থাকেন তাহলে নিচের বিষয়গুলো লক্ষ্য রাখবেন।

১. গ্রুপ চেষ্টা করবেন আপনিই তৈরি করার। যদি বায়ার নিজেই করে থাকে তাহলে অবশ্যই কতজন মেম্বার গ্রুপে যুক্ত বিষয়টা নিশ্চিত হবেন।

২. কোন গ্রুপের সাথে Admin Deal বা এডমিন ডিল হচ্ছে সেটা অবশ্যই ডিল বা গ্রুপ এ যুক্ত হওয়ার আগেই জেনে নিবেন।

৩. আবার আপনি যেই ডিল গ্রুপে যুক্ত আছে সেটার এডমিন আইডি টা একটু চেক করে নিবেন।

৪. চেক করার ক্ষেত্রে আপনি দুইটা পদ্ধতি অবলম্বন করতে পারেন। যেমন, আপনি প্রথমে সেই গ্রুপের মেম্বার লিষ্ট থেকে এডমিনকে নক করবেন এবং পরে আপনি ডিল করার জন্য যেই গ্রুপ সেটা থেকে আবারও এডমিনকে নক করবেন।

৫. দুইটা এডমিন ম্যাসেজ যদি দেখেন একই আইডিতে যাচ্ছে তখন আপনি বুঝবেন আপনি সঠিক ভাবেই ডিলটা করছেন।

৬. নিয়মিত লেনদেন করলে এডমিন বিকাশ, নগদ, রকেট, ব্যাংক লেনদেন হলে ব্যাংক নাম্বার আগের মতই থাকবে। যদি Admin Deal বা এডমিন ডিল এর সময় আপনাদেরকে নিয়ম এর লিস্ট দেয় তাহলে সেটাতেও মিলিয়ে নিতে পারবেন।

৭. বায়ার আইডিকেও চেক করে নিবেন ডিল শুরুর আগেই। অনেক সময় বায়ার ফেইক আইডি দিয়ে লেনদেন করে থাকে। আর ফেইসবুক আইডি দেখলেও অনেক সময় রিয়েল বায়ার চেনা যায়।

 

এডমিন ডিলের ক্ষেত্রে বায়ার কি দেখবেন

আমার মতে এডমিন ডিলের ক্ষেত্রে বায়ারই অনেক বড় ভূমিকা পালন করতে পারে। কারণ বায়ার তো আগে কোন পণ্য দেবে না আগেই সে এডমিন নাম্বারে টাকা দিয়ে দেবে। আর এই কারণেই বায়ারকে বেশি সচেতন হতে হবে Admin Deal বা এডমিন ডিল এর সময়টাতে।

নিচে আমি সেলারের মত কিছু বিষয় যেগুলো জানা অনেক জরুরী উল্লেখ করছি। আশা করি বিষয়গুলো লক্ষ্য রাখলে এই ধরনের প্রতারণা থেকে সহজেই মুক্তি পাবেন।

১. চেষ্টা করবেন বড় মানে বেশি টাকার লেনদেন হলো নিজেই গ্রুপ তৈরি করার।

২. সেলারের আইডিটা চেক করে নিবেন। কারণ আপনি যেহেতু ডিল করার সময় আগে টাকা দিবেন সেক্ষেত্রে অবশ্যই আপনি সেলার আইডিকে চেক করে নিবেন।

৩. গ্রুপের মেম্বার লিস্ট থেকে সেলার আইডি সার্চ দিলেই সেই আইডির সকল তথ্য পাবেন। অনেক সময় এভাবেই আসল ও নকল বা প্রতারক আইডি চেনা যায় অনেক সহজ ভাবেই।

৪. বায়ার যদি নিজেই গ্রুপ করে ডিল করেন তাহলে এডমিন আইডি চেক করার তেমন কোন প্রয়োজন হবে না। আর যদি সেলার ডিল গ্রুপ তৈরি করে তাহলে সেলারের মত করে আপনিও চেক করে নিবেন।

৫. টাকা পাঠানোর পরে অবশ্যই আপনি স্ক্রিনশর্ট রাখবেন। এবং পাঠানোর আগে আপনি যদি নিয়মিত হোন তাহলে এডমিন নাম্বার ও আইডিটা আবারও রিচেক করে নিবেন।

 

উপরের নিয়মগুলো মেনে যদি আপনি এডমিন ডিল করেন তাহলে আমার বিশ্বাস কখনই আপনি প্রতারণার শিকার হবেন না। আশা করি নিয়মগুলো জেনে নিবেন। আর নিয়মগুলো যে অনেক বার পড়তে হবে বিষয়টা এমন নয়।  আপনি একবার পড়ে নিলেই আর পড়া লাগবে না।

 

এডমিন ডিল বা Admin Deal চার্জ সংক্রান্ত বিষয়

কোন কোন এডমিন ফ্রিতেই ডিল করে দেন। তবে এই সংখ্যাটা অনেক কম বা নেই বললেই চলে। হয়তো তিনি ট্রান্সজেকশান চার্জটাই নেন শুধু। তবে বেশির ভাগই এডমিন ডিলের চার্জ হাজারে ১০% থেকে শুরু করে বিভিন্ন ধরনের হয়ে থাকে।

সাধারণ চার্জ কত হয়ে থাকে 

কিছু গ্রুপ আছে চার্জ মোট টাকার উপর নিয়ে থাকেন। এখানে অসুবিধা হলো ছোট বা কম থাকে তাহলে চার্জ অনেক বেশি পড়ে যায়। নিচে একটা লিস্ট করে দেওয়া হলো Admin Deal এর চার্জ সংক্রান্ত বিষয়গুলো স্পষ্ট হওয়ার জন্য।

(ক) ১ থেকে ৫ হাজার টাকা পর্যন্ত ৫০ টাকা চার্জ।

(খ) ৫ হাজার থেকে ১০ হাজার টাকা পর্যন্ত ১০০ টাকা চার্জ।

(গ) ১০ হাজার থেকে ১৫ হাজার টাকা পর্যন্ত ১৫০ টাকা চার্জ।

(ঘ) ১৫ হাজার থেকে ২০ হাজার টাকা পর্যন্ত চার্জ ২০০ টাকা।

(ঙ) ২০ হাজার থেকে ২৫ হাজার টাকা পর্যন্ত ২৫০ টাকা চার্জ।

(চ) ২৫ হাজার থেকে ৩০ হাজার টাকা পর্যন্ত চার্জ ৩০০ টাকা।

সাধারণ একটি হিসেব দেওয়া হলো। তবে অনেক সময় ২৫ হাজারের বেশি টাকার ডিলগুলো ফিজিক্যাল বা ব্যাংকের মাধ্যমে করতে বলা হয়ে থাকে। আর ২৫ হাজার টাকার কম হলে বিকাশ, নগদ, রকেট এই তিনটা বেশি ব্যবহার করা হয়ে থাকে।

 

শেষ কথা বা উপসংহার

সবশেষে বলবো নিয়মিতই আপনারা অনলাইনে প্রতারণার বিষয়গুলো নিয়ে জানতে পারেন। আর বর্তমানে বিভিন্ন অনলাইন মিডিয়ার কারণে অনেক দ্রুতই খবরগুলো চারদিকে ছড়িয়ে পড়ে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.